বিস্তারিত
  • সিজারিয়ানে জন্ম নিল ছাগলের বাচ্চা!


    বিশ্বনাথ বিডি ২৪ || ২২ মার্চ, ২০১৮, ৬:০৪ অপরাহ্ণ || চিত্র-বিচিত্র


    কক্সবাজারের চকরিয়ায় সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে একটি ছাগলের বাচ্চা হয়েছে। সফলভাবে অপারেশনটি সম্পন্ন করেন একদল চিকিৎসক। এর নেতৃত্বে ছিলেন উপজেলা প্রাণিসম্পদের ভেটেরিনারি সার্জন ডা. ফেরদৌসী আকতার। চকরিয়ায় এটিই ছাগলের প্রথশ সিজারিয়ান অপারেশনের ঘটনা।

    গত ২৭ ফেব্রুয়ারি রাত সোয়া ৮টার দিকে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের ভেটেরিনারি হাসপাতালে এ অপারেশনটি হয়। বর্তমানে সিজারিয়ান বাচ্চা ও মা ছাগল উভয়েই সুস্থ আছে।

    হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, ছাগলের মালিক চকরিয়ার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের মুসলিম নগরের ফালেছা বেগম। তার বাড়ি ৮ নম্বর ওয়ার্ডের গাবতলী বাজার এলাকায়। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ফালেছা বেগম তার একটি গাভিন ছাগল নিয়ে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ে আসেন। সেখান থেকে ভেটেরিনারি হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ভেটেরিনারি সার্জন ডা. ফেরদৌসী আকতার ছাগলটি পর্যবেক্ষণ করেন। পরে তিনি সিজারিয়ান অপারেশনের সিদ্ধান্ত নেন এবং একটি দল গঠন করে অপারেশনটি সম্পন্ন করেন।

    ভেটেরিনারি সার্জন ডা. ফেরদৌসী আকতার জানান, ‘গর্ভবতী ছাগলটির পানিভাঙা শুরু হলেও সহসা বাচ্চা প্রসব হচ্ছিল না। ছাগলটি তিন মাস আগে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে পেলভিক গার্ডলে ক্ষতি হয়। ফলে বাচ্চা প্রসব করতে এটি যতটা সম্প্রসারিত হওয়ার কথা তা হচ্ছিল না। এ অবস্থায় ছাগলটির স্বাভাবিক প্রসব হওয়ার সম্ভাবনা একেবারেই ছিল না। তাই বাধ্য হয়ে সিজারিয়ানে যেতে হয়েছে।’

    তিনি আরও বলেন, ‘এই অপারেশনটি সফল হতে সহায়তা করেছেন ইন্টার্ন চিকিৎসক সাজিদ হাসান। এছাড়া ইন্টার্ন ভেটেরিনারি ফিল্ড অ্যাসিস্ট্যান্ট মো. বাবরও টিম সদস্য হিসেবে কাজ করেছেন। এই তিনজনে মিলেই সিজারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল।’

    ভিন্ন ধরণের এই অপারেশনটি সম্পন্ন করতে বিভিন্ন ধরনের জটিললতায় পড়তে হয়েছে ডা. ফেরদৌসী আকতারদের। তিনি জানান, ‘অপ্রতুল যন্ত্রপাতি ও অনুপযুক্ত পরিবেশে সিজারটি করতে হয়েছে। তবে দুই ঘণ্টা ২০ মিনিটের চেষ্টার পর সফলতার দেখা মেলে। অনেকেই পশুর সিজারের মাধ্যমে বাচ্চা হওয়ার বিষয়টি এখনো জানেন না।’

    ছাগলটির এমন অবস্থা দেখে এর মালিক ফালেছা বেগম কিছুটা অবাকই হয়েছেন। কারণ তিনি এর আগে কখনো শোনেননি যে ছাগলেরও সিজারে বাচ্চা হতে পারে। ফালেঠা বেগম বলেন, ‘এমন ঘটনা এই প্রথম দেখলাম। মা ছাগল ও বাচ্চা এখন পুরোপুরি সুস্থ আছে।’



সর্বশেষ খবর


নিউজ খুঁজুন
আর্কাইভ
ফেইসবুক পেইজ